” যোগ্যতা”
———————————————————-
পীযূষ কান্তি দাস
———————————————————-
এই ছোঁড়া তুই এদিকে আয় কেন ওদিক যাস ,
ঘুরলি তো রে দশটি বছর মিটলোনা তাও আশ !
লাভ কিছু নাই পার্টি করে বুঝবি দুদিন পরে ,
এইবেলা তাই ঘরের ছেলে যা ফিরে যা ঘরে ।
ওদের পিছে ঘুরে ঘুরে করলে বয়স পার ,
আমার মতো কাঁদতে হবে জীবনটা ছারখার ।
তোর মতো হায় ঘুরেছিলাম আমিও আট সাল ,
শুনিনি তো কারুর মানা বাপের যতো গাল ।
বুড়োবাপে খেটেছিলো মুখে তুলে রক্ত ,
আমি নাকি কাজের ছেলে পার্টির বড়ো ভক্ত ॥

অনেক কষ্টে করেছিলাম এম .এ .টুকুন পাশ,
“চাকরী পাবি” পার্টির দাদাও দিয়ে ছিলো আশ ।
পার্টির জন্য ঝরিয়েছিলাম কতো রক্ত- ঘাম ,
কাজ ফুরাতে হলাম পাজি নাই কোন তার দাম ।
দুইটি বিঘে জমিন বেচে দিলাম আট লাখ টাকা ,
আরও দুলাখ দিতে গিয়ে মায়ের গয়না ফাঁকা ।
গিয়ে গিয়ে ছিঁড়লো জুতা জোটেনি তাও কাজ ,
পরের জমির দিনমজুরী তাইতো করি আজ ।
তখন থেকেই বুঝে গেছি হলো মোহভঙ্গ ,
সবচে’ বড়ো আজবদেশ ভাই আমাদের এই বঙ্গ ।
যতোই তুমি পাশ কেন দাও লাখ যোগ্যতা থাক ,
সেসব ভাই ওই শিকের পরে সবাই তুলে রাখ ।
ভাগ্না -ভাগ্নি হতে হবে নিদেন বউয়ের ভাই ,
নইলে জানিস কপালে তোর চাকরীটা তো নাই ॥

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s